সারাদেশ

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ঢাকা-বরিশাল বিমান রুটে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স

  প্রতিনিধি ২৯ আগস্ট ২০২৩ , ৪:১৬:৪৯ প্রিন্ট সংস্করণ

রবিউল ইসলাম রবি॥ঢাকা-বরিশাল রুটে বিমান আগামী ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের যাত্রী সেবা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

যাত্রী পরিপূর্ণতাসহ ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স বরিশালে জনপ্রিয়তা অর্জন করার পরও হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের বরিশাল সেলস্ ইনর্চাজ মো: রিয়াদ হোসেন বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে এ সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জানা গেছে,ঢাকা-বরিশাল বিমান রুটে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রতিদ্বন্দ্বী বিমান বাংলাদেশ। সপ্তাহে মাত্র তিন দিন ( বৃহস্পতিবার, শুক্রবার ও রবিবার) তিনটি ফ্লাইট বিমান বাংলাদেশের।

আচর্যজনক বিষয় হলেও সত্য বিমান বাংলাদেশের ফ্লাইট অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলমান থাকলেও সেই দিন যাত্রীতে পরিপূর্ণ থাকে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স।যেমন গত ২৭ আগষ্ট রবিবার বিমান বাংলাদেশের যাত্রী সংখ্যা ছিল ২৮ জন।বিপরীতে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের যাত্রী ছিল ৫৫ জন। অপরদিকে বিমান বাংলাদেশের যাত্রী সেবা বন্ধের দিন ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের গত ২৯ আগষ্ট ঢাকা থেকে বরিশাল যাত্রী এসেছে ৬৭ জন এবং বরিশাল থেকে ঢাকা গিয়েছেন ৭০ জন,যেখানে মোট আসন সংখ্যা ৭২। জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া ৩২০০ টাকা।পদ্মা সেতু চালু হবার পরও নিয়মিত যাত্রীদের কাছে যোগাযোগের ক্ষেত্রে প্রিয় হয়ে উঠে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সটি।

অপরদিকে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের চলমান ঢাকা-যশোর রুটে জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া ২৯৯৯ টাকায় একই দিনে ২টি ফ্লাইট পরিচালনা করেন।অথচ ঢাকা-বরিশালে জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া ৩২০০ টাকা হলেও একমাত্র ফ্লাইটির চালাচল রহস্যজনকভাবে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।এমন কার্যকলাপের অনুকূলে প্রশ্ন তুলেছেন একাধিক যাত্রী। ষতাদের প্রশ্ন ঢাকা থেকে বরিশাল আসতে সময় লাগে ২০ মিনিটি। ষঅন্যদিকে ঢাকা থেকে যশোর যেতে সময় লাগে প্রায় ৪৫ মিনিট।ঢাকা-বরিশাল বিমান রুটে যশোরের তুলনায় যাত্রী সংখ্যায় এগিয়ে এবং সময়ও কম লাগে। সেখানে কর্তৃপক্ষ এমন সিন্ধান্ত কেন নিয়েছেন তা আমরা জানি না। নিয়মিত যাতায়াত করা ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার,ব্যবসায়ীদের চরম ভোগান্তি নেমে আসবে।

বরিশাল এয়ারপোর্ট ম্যানেজার আব্দুর রহিম জানান, অফিসিয়ালভাবে তাকে কোন কিছু জানানো হয়নি।তাই তিনি এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি নয়।

আরও খবর

Sponsered content