জাতীয়

পাঁচ মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের রুদ্ধদ্বার বৈঠক

  প্রতিনিধি ৮ জুলাই ২০২৪ , ৪:৫২:২০ প্রিন্ট সংস্করণ

নিজস্ব প্রতিবেদক।।চার মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীকে ডেকে নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রত্যাশীদের কোটা আর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের পেনশন আন্দোলনের বিষয়ে সরকারের পাঁচ মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী এ বৈঠক করেন বলে জানা গেছে।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।এরপরই দপ্তর কক্ষে চলে যান তিনি।শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত ছিলেন।পরে দুপুর ১টা ৩২ মিনিটে সেখানে আসেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বেগম শামসুন্নাহার চাঁপা।এসময় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াও উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়,সারাদেশে চলমান শিক্ষার্থীদের কোটা সংস্কার ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের পেনশন আন্দোলন নিয়ে পাঁচ মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী আলোচনা করতে পারেন। বৈঠকটি আয়োজন করে আওয়ামী লীগ।

প্রায় এক ঘণ্টার বৈঠক শেষে দুপুর ২টা ১২ মিনিটের দিকে দপ্তর কক্ষ ত্যাগ করেন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা।প্রথমেই আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দপ্তর কক্ষ থেকে বের হয়ে আসেন।তবে এসময় তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।

এরপর আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হন শিক্ষামন্ত্রী এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রী।তবে তারাও বৈঠকের আলোচ্য বিষয় নিয়ে পরিষ্কার কোনো বক্তব্য দেননি।

এক প্রশ্নের জবাবে তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত বলেন,সামগ্রিক বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে।রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে কথা বলেছি৷এই বসাটা নিয়মিত। আমরা নিয়মিতই বসি।বিভিন্ন জায়গায় বসা হয়।’

অন্যদিকে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন,নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি।সেগুলি আসলে এই মুহূর্তে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলোচনার মতো বিষয় নয়।’

এই বৈঠকের আগে সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, শিক্ষার্থীদের কোটা আন্দোলনে বিএনপি ভর করেছে বলে মন্তব্য করেন।তিনি বলেন,মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টি হয় এমন যেকোনো কর্মসূচি পরিহার করা উচিত।…কোটা নিয়ে উচ্চ আদালতের রায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতেই হবে।’

অন্যদিকে সর্বজনীন পেনশনের প্রত্যয় স্কিম প্রত্যাহার চেয়ে দেশের ৩৫ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন,পেনশন নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি থাকতে পারে আর বাস্তবতার আলোকে সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক না আমলারা সুপিরিয়র তা নিয়ে সরকার বিতর্কেও যাবে না।’

আরও খবর

Sponsered content